Tuesday , October 24 2017
Breaking News
Home / featured / শরীরের বিশেষ স্থানে ট্যাটু করিয়ে প্রথম ভারতীয় হিসেবে নজির গড়লেন দিল্লি নিবাসী

শরীরের বিশেষ স্থানে ট্যাটু করিয়ে প্রথম ভারতীয় হিসেবে নজির গড়লেন দিল্লি নিবাসী


Nblive অপরাজিতা জোয়ারদারঃ থাকবো না কো বদ্ধ ঘরে, দেখবো এবার জগতটাকে… কাজী নজরুল ইসলামের এই কবিতা পড়ে যেন আমাদের জগত দেখার অভীপ্সা আরও বেড়ে যায়। কিন্তু চোখ না থাকলে কিভাবে আমরা এই জগত টা দেখতে পেতাম বলুন তো! এমন কত মানুষ পৃথিবীতে আছেন যাদের দৃষ্টিশক্তি না থাকায় অন্ধকারময় জীবন অতিবাহিত করতে হয়। এমন কঠোর বাস্তব জেনেও শুধুই স্টাইল স্টেটমেন্ট বজায় রাখতে সেই অমূল্য ইন্দ্রিয়তেই ট্যাটু করলেন দিল্লি নিবাসী, ২৮ বছর বয়সী প্রফেশনাল ট্যাটুশিল্পী করণ।

১৩ বছর বয়সে প্রথম ট্যাটু করেছিলেন তিনি। শুধু তাই নয়, নাক, কান, চোখের ওপর পিরসিংও করিয়েছেন তিনি। স্ক্লেরা স্টেনিং নামে এই সার্জারির মাধ্যমে কৃত্রিমভাবে চোখের সাদা অংশে স্থায়ী রঙ করা হয়। সম্প্রতি এই স্ক্লেরা স্টেনিং করিয়ে দৃষ্টিশক্তি হারাতে বসেছেন ২৪ বছর বয়সী, কানাডা নিবাসী মডেল ক্যাট গ্যালিঙ্গার।

ক্যাটের বাঁ-চোখের সাদা অংশে বেগুনি রঙ ইঞ্জেক্ট করতে গিয়েই ঘটে বিপত্তি। এদিকে লুনা কোব্রা, যিনি এই আর্টের স্রষ্টা, তিনি নিজের ওয়েবসাইটে সকলকে সতর্ক করে বলেন, এই স্ক্লেরা ট্যাটু কখনোই তিনি কাউকে করার জন্য প্রশিক্ষণ দেননি। এই সার্জারি যে যথেষ্ট বিপদজনক তাও জানান তিনি।


আমেরিকান অ্যাকাডেমি অব অফথালমালজি’র রিপোর্ট অনুযায়ী, চোখের সাদা অংশে কংজাংটিভায় ছোট সুচ ফুটিয়ে এই ট্যাটু করা হয়। সূঁচ দিয়ে কালি চোখের ইঞ্জেক্ট করা হয়। এতে কর্নিয়ার ব্যপক ক্ষতি হয়। দৃষ্টিশক্তি হারানোর সম্ভাবনাও অনেকাংশেই থাকে এই সার্জারিতে।

স্পেশাল ট্রেনিং ছাড়া কোনো ভাবেই এই ট্যাটু করানো উচিত না বলেও জানান চিকিৎসকেরা। চোখে জ্বালা, চোখ থেকে জল পড়া, সূর্যকিরণ আরও বেশি সংবেদনশীলতার মত সমস্যা থাকে এই সার্জারিতে। করন জানিয়েছে অপারেশনের পর দুই সপ্তাহের মধ্যে তাঁর চোখ ঠিক হয়েছে। তাঁর অপারেশন সফল বলেও জানিয়েছেন তিনি। আর এই অপারেশনের সফলতায় করনের প্রাপ্তি বাড়তি এ্যটেনশন, যাতে ভীষণ খুশি তিনি।

যদিও ক্যাটের বিষয়টি মর্মান্তিক বলেও দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি। নিউইয়র্কএ অস্ট্রেলিয়ান ট্যাটু আর্টিস্ট দের দিয়ে এই স্ক্লেরা স্টেনিং করান তিনি। করণই প্রথম ভারতীয় যিনি এই আই বল ট্যাটু করালেন। তবে এই সার্জারি কি শুধুই স্টাইল স্টেটমেন্ট বজায় রাখা নাকি দুঃসাহস.. প্রশ্ন কিন্তু থেকেই গেল।

আরও দেখুন

‘চোপ! অসভ্যতা চলছে’, ফেসবুক কান্ড নিয়ে মিছিল তৃণমূলের, বালুরঘাটে শুরু রাজনৈতিক তরজা

Nblive বালুরঘাটঃ চোপ!! অসভ্যতা চলছে। বালুরঘাট ফেসবুক কান্ডের প্রতিবাদে এমনই ব্যানার হাতে বিক্ষোভ মিছিলে সামিল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *