Friday , January 19 2018
Breaking News
Home / featured / দীর্ঘদিন থেকে স্কুলে অনুপস্থিত শিক্ষককে শোকজ, আক্রান্ত প্রধান শিক্ষক, রণক্ষেত্র হাতিয়া

দীর্ঘদিন থেকে স্কুলে অনুপস্থিত শিক্ষককে শোকজ, আক্রান্ত প্রধান শিক্ষক, রণক্ষেত্র হাতিয়া

Nblive রায়গঞ্জঃ দীর্ঘদিন থেকে স্কুলে অনুপস্থিত থাকার কারনে এক সহকারি শিক্ষককে শোকজ করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র হয়ে উঠল রায়গঞ্জের হাতিয়া হাইস্কুল। ওই সহকারি শিক্ষকের স্ত্রী-য়ের হাতে আক্রান্ত স্কুলের প্রধান শিক্ষক। খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে আক্রান্ত হয় সংবাদমাধ্যমও। দুই শিক্ষকের বিবাদের জেরে স্কুলের পঠনপাঠনের পরিবেশ নষ্ট হওয়ার অভিযোগ তুলে স্কুলে ঢুকে প্রধান শিক্ষক অনিরুদ্ধ সিনহা ও সহকারি শিক্ষক অমিত রায়কে ব্যাপক মারধর করে ভাঙচুর চালায় গ্রামবাসীরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় পৌঁছায় রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী সহ র‍্যাফ ও কমব্যাট। ব্যাপক লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। ঘটনায় ছয়জনকে আটক করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। এলাকায় বসানো হয়েছে পুলিশ পিকেট।


হাতিয়া হাইস্কুলের প্রধানশিক্ষক অনিরুদ্ধ সিনহা অভিযোগ করে বলেন, “বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক অমিত রায় ২০১১ সাল থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত ২৯২ দিন ছুটি না নিয়ে স্কুলে অনুপস্থিত ছিলেন। তাঁকে নিয়ম অনুযায়ী পরিচালন কমিটির পরামর্শ মেনে শোকজ করা হয়েছে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, “এই ঘটনার পরেই এদিন সকালে অমিত বাবু তাঁর স্ত্রীকে স্কুলে নিয়ে এসে শারীরিক হেনস্থা করে আমাকে।”


সহকারি শিক্ষক অমিত রায়ের স্ত্রী অর্পিতা রায় বলেন, “স্বামীর স্কুলের সমস্যা নিয়ে এদিন প্রধানশিক্ষক অনিরুদ্ধ রায়ের সাথে কথা বলতে আসি। কিন্তু প্রধান শিক্ষক অনিরুদ্ধ সিনহা কথা বলার বদলে হাত ধরে টানাটানি শুরু করেন।” এরপরেই আত্মরক্ষায় প্রধান শিক্ষককে জুতো দিয়ে মেরেছি বলে অকপট স্বীকার উক্তি দেন অর্পিতা দেবী।


এদিকে সহকারি শিক্ষক অমিত রায় বলেন, ইচ্ছাকৃত ভাবে প্রধানশিক্ষক হাজিরা খাতা লুকিয়ে রেখে তাঁকে অনুপস্থিত দেখিয়ে শোকজ করেছেন।


বিদ্যালয় পরিচালন সমিতির সভাপতি আমজাদ হোসেন জানান, যে শিক্ষককে শোকজ করা হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে আগেও অনুপস্থিতির অভিযোগ ছিল। তাঁকে শোকজ করা হয়েছিল। এদিন প্রধান শিক্ষকের সাথে যে ঘটনা হয়েছে তা নিন্দনীয়।

আরও দেখুন

বাবাকে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগ ছেলের বিরুদ্ধে

Nblive করণদিঘিঃ ছেলের হাতে খুন হল বাবা। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার করণদিঘি থানার বারুল …

একটি মন্তব্য