Tuesday , October 24 2017
Breaking News
Home / featured / শিল্পী ভাতার টোপ, সহবাসের প্রস্তাব মহিলা লোকশিল্পীদের, অভিযুক্ত তথ্য সংস্কৃতি দফতরের কর্মী

শিল্পী ভাতার টোপ, সহবাসের প্রস্তাব মহিলা লোকশিল্পীদের, অভিযুক্ত তথ্য সংস্কৃতি দফতরের কর্মী

Nblive রায়গঞ্জঃ শিল্পী ভাতা পাইয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে মহিলা লোকশিল্পীদের সহবাসের প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ উঠল উত্তর দিনাজপুর তথ্য সংস্কৃতি দফতরের এক কর্মীর বিরুদ্ধে। দফতর সূত্রে খবর অভিযুক্ত ওই কর্মীর নাম অমিয় কুমার জানা। তিনি দফতরের জুনিয়র ফিল্ড ইনফরমেশন অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে কর্মরত বলে জানা গেছে। অভিযুক্ত ওই কর্মীর বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানা ও বিভাগীয় দফতরে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। লিখিত অভিযোগ জমা পড়েছে জেলা শাসকের কাছেও।

অভিযোগ, বিগত প্রায় কয়েক বছর থেকে অমিয় বাবু জেলার প্রায় ৫০০০ হাজার লোকশিল্পীদের মাসিক ১হাজার টাকা ভাতা পাইয়ে দেওয়ার নাম করে ১০০০ থেকে ৩০০০ হাজার টাকা পর্যন্ত ঘুষ নিয়েছেন। শিল্পীদের আরও অভিযোগ, মহিলা শিল্পীদের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক স্থাপন করে টেলিফোনে তাঁদের সাথে বিভিন্ন রকমের অশ্লীল প্রস্তাবও দিয়েছেন। এরপরেই দফতরের এই কর্মীর মানসিক অত্যাচার থেকে রক্ষা পেতে ক্ষোভে ফেটে পড়েন শিল্পীরা। একযোগে লিখিত অভিযোগ জমা দেন তথ্য সংস্কৃতি দফতরের আধিকারিকের হাতে ও রায়গঞ্জ থানায়।


এই বিষয়ে লোকশিল্পী নবনীতা সাহা অভিযোগ করে বলেন, গত ২৯ আগস্ট তথ্য সংস্কৃতি দফতরের ওই কর্মী তাঁকে ফোন করে বলেন, ” তার সাথে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতে পারলে পরিবারের সকলকে শিল্পী ভাতার কার্ড তিনি করে দেবেন।” ওই কর্মীর প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় অপহরণ করার হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন নবনীতা দেবী। একই রকম অভিযোগে সরব হয়েছেন আরেক লোক শিল্পী অপর্ণা বর্মন। তিনি বলেন, মহিলা শিল্পীদের শুধু সহবাসের প্রস্তাবই নয়, ভাতা পাইয়ে দেওয়ার জন্য হাজার হাজার টাকা ঘুষও নিয়েছেন তিনি। এছাড়াও ফোন করে কখনও ছবি তুলে দেওয়া আবার কখনও গানের অ্যালবাম করে দেওয়ার টোপও দিতেন ওই কর্মী। অভিযুক্ত ওই সরকারি কর্মীর কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন লোক শিল্পীরা।

জেলা তথ্য সংস্কৃতি দফতরের আধিকারিক অরুণাভ মৈত্র বলেন, ওই কর্মীর বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ জমা পড়েছে। বেশিরভাগ কাজটাই দফতরের বাইরে থেকে ঘটিয়েছেন বলে জানতে পেরেছি। দফতর, পুলিশ ও প্রশাসন সঠিক বিচার করবে বলেও আশা প্রকাশ করেন অরুণাভ বাবু। তিনি আরও বলেন, ওই কর্মীর বিরুদ্ধে এর আগেও বেশ কিছু অভিযোগ এসেছিল। একজন ব্যক্তির বিরুদ্ধে একই অভিযোগ একাধিক মানুষ করলে সেই অভিযোগ ভিত্তিহীন নয় বলেই মনে করছেন অরুণাভ বাবু।

এই বিষয়ে জেলা শাসক আয়েষা রানী বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরও দেখুন

‘চোপ! অসভ্যতা চলছে’, ফেসবুক কান্ড নিয়ে মিছিল তৃণমূলের, বালুরঘাটে শুরু রাজনৈতিক তরজা

Nblive বালুরঘাটঃ চোপ!! অসভ্যতা চলছে। বালুরঘাট ফেসবুক কান্ডের প্রতিবাদে এমনই ব্যানার হাতে বিক্ষোভ মিছিলে সামিল …

একটি মন্তব্য

  1. এই ভদ্র( ? )লোকটি বহুদিন যাবত এই ধরনের নোংরামি করে আসছেন। পেশাগত ভাবে বা সামাজিক ভাবে ওনার পরিচিত , সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা এই সমস্ত কীর্তিকলাপ সম্পর্কে খুব ভালো মতোই ওয়াকিবহাল।