Thursday , August 17 2017
Breaking News
Home / featured / সৌপ্তিক পর্বের চিঠিঃ অর্জুন রায়চৌধুরী

সৌপ্তিক পর্বের চিঠিঃ অর্জুন রায়চৌধুরী

Nblive পোর্টজিনঃ

 

সৌপ্তিক পর্বের চিঠি
অর্জুন রায়চৌধুরী

কলকাতা

এখন পড়ন্ত বিকেল।

পথ ভুলে নেমে আসি রাস্তায়,

চুল্লিতে তুলে দিয়ে সিগারেট ধরাব,

খুচরো নেই।

পকেট ছেঁড়া।

 

ঘরময়

ছড়িয়ে

রেখেছে

কবিতা,

ধুলো জমে গেছে তাকে,

চায়ের দাগ ধরে রাখে শ্রেষ্ঠ কবিতা – জীবনানন্দ দাশ,

ও বাড়ি থেকে ভেসে আসে সাঁতলানো মাছেদের ভিড়।

শীতকাল।।

 

চাদর জড়িয়ে লোকটা ঝুলে পড়েছে

পকেটের দুটো ছবি,

পোকা কাটা,

স্ত্রী বিগত বহুকাল,

ছোটছেলে চুল্লিতে নিয়ে গেছে বাকি ছবিখানা,

 

মাটি খুঁড়ে কঙ্কাল হয়ে যাবে,

পৃথিবীর সাদা চামড়ার তলায়

রেখে যাব চর্মরোগ-

“নাগাসাকি”..

মার্টিন লুথার কিং এবং ট্রুমান আজ পাশাপাশি শুয়ে

 

এখন ভাল্লাগেনা প্রেমিকার ঠোঁট

বাসে ট্রামে মেয়েদের বুক,

শক্তির কবিতা,

জ্বলন্ত নেভিকাট।।

 

ভালোবাসতে পারছি না, ৫২১ টা শিশুর লাশ শুয়ে আছে

সামনের মর্গে,

ধর্ম শকুন, আর ঝান্ডার ভিড়ে

আমি তোমাকে খুঁজছি নন্দিনী,

ডান স্তন শিশুর মুখে গুঁজে দিয়ে

আসন্ন প্রসবে ছটফট..

 

ভালোবাসা পাচ্ছেনা নন্দিনী,

৫২১টা শিশুর লাশ শুয়ে আছে সামনের মর্গে!

আমি

হাতড়ে

খুঁজি

অন্ধকার,

 

সারারাত, মৃত মুখ আগলে স্নেহ চুম্বন

কাফানে মোড়া নীলদাগ

ব্যাথার

ফাইবার রুল,

বীভৎস শব্দ

কাঠের কফিন, মাটি পড়ছে

ঝুরঝুর,

 

ডি এ বাকি আছে বহুকাল,

পি এফের খবর জানিনা,

আকবর বাদশা আর হরিপদ কেরানীর তফাত এখানেই

একজন চালে মরে, অন্যটা বে-চাল।

 

১০

সামনের বাগানে লাশ পড়ে আছে

৫২১টা,

আকবর বাদশার হরিপদ কেরানি হওয়ার আগেই

যাদের বাঁচিয়ে দিল

প্রিয় দ্বেষ

 

১১

ভালোবাসা পাচ্ছে নন্দিনী,

তোমাকে আদর করতে গিয়ে বারবার মনে পড়ে

৫২১টা লাশ,

তোমাকে ভালবাসতে গিয়ে কঠিন ঠাঁই এ জমিন

কোন নরমে ওরা থেকে যাবে বলো?

আমাকে প্রেমিক করেছ,

বর্ষার গর্ভিনী মাটি,

কোমল করোনি

 

১২

ভালোবাসা পাচ্ছে আমাদের

ভালো বাসা,

 

ওরা বাইরেই শুয়ে থাকবে?

বলো? “

আরও দেখুন

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি দক্ষিণ দিনাজপুরে, সাহায্য চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ বাম বিধায়ক

Nblive বালুরঘাটঃ দক্ষিণ দিনাজপুরে বন্যা পরিস্হিতির অবনতি। নদীর জল আরও বেড়েছে। আজ বংশীহারি ব্লকের নারায়ণপুরের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *