Sunday , October 22 2017
Breaking News
Home / featured / দল ছাড়ার আগে মমতাকে বিস্ফোরক চিঠি করিমের, কী লিখলেন চিঠিতে? পড়ুন

দল ছাড়ার আগে মমতাকে বিস্ফোরক চিঠি করিমের, কী লিখলেন চিঠিতে? পড়ুন

Nblive রায়গঞ্জঃ তৃণমূল কংগ্রেস ছাড়ার ঘোষণা আগেই করেছিলেন। কিন্তু দল ছেড়ে অন্য কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দেবেন কিনা সেই বিষয়ে কিছু না জানিয়ে রহস্য তৈরি করেছিলেন উত্তর দিনাজপুরের বর্ষীয়ান নেতা আবদুল করিম চৌধুরী। শুক্রবার সেই রহস্যের পর্দাফাঁস করলেন নিজেই। মমতাকে “আলবিদা” জানিয়ে অন্য কোনও দলে যোগ না দিয়ে নিজেই নতুন দল গড়ার ঘোষণা করলেন করিম সাহেব। বাংলা বিকাশবাদী কংগ্রেস নামে নতুন রাজনৈতিক দল গড়ে দরজা খুলে দিলেন তৃণমূলে উপেক্ষিত নেতাদের জন্য।

শুক্রবারই মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ইস্তফা পত্র পাঠিয়েছেন  করিম চৌধুরী। দলনেত্রী সহ দলীয় নেতৃত্বের একাংশের প্রতি একরাশ ক্ষোভও উগরে দিয়েছেন ওই চিঠিতে।

মমতাকে সম্বোধন করে লেখা ওই চিঠিতে করিম সাহেব বলেছেন, ” দীর্ঘ ১৬ বছর আপনার দলের সঙ্গে থাকার পর মন ভার করেই আজ ইস্তফা পত্রটি লিখছি। আপনাকে আগেই জানিয়েছিলাম, দলের জেলা সভাপতি অমল আচার্য, বিধায়ক হামিদুর রহমান, জেলা পরিষদের সদস্য জাভেদ আখতার, গঙ্গেশ দে সরকার ও গোলাম রব্বানি অন্তর্ঘাত  করে আমাকে গত বিধানসভা ভোটে হারিয়েছে। কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে আসা এই তিন বিধায়ক শুধুমাত্র মন্ত্রী হওয়ার জন্যই  কংগ্রেসের কানহাইয়ালাল আগরওয়ালকে সবরকম সাহায্য করে বিধানসভা ভোটে জিতিয়েছে। কানহাইয়া জিতলেই তৃণমূলে যোগ দেবেন এটাই তাঁর সঙ্গে তাঁদের শর্ত হয়েছিল। এরপরেই দলের জেলা পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী কানহাইয়ালাল আগরওয়ালকে দলে নিয়ে এসে ইসলামপুরে তৃণমূল বিধায়কের শূন্যপদ পূরণ করে দেন। এই আনন্দে  ইসলামপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে নয় বারের জয়ী বিধায়ক হওয়া সত্ত্বেও আমাকে সাইড ট্র্যাকে পাঠিয়ে দিলেন। একবারও আমার অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন বোধ করেননি আপনি। বরং আমার দিক থেকে মুখ সরিয়ে নিয়েছেন। ইসলামপুর কলেজের ছাত্র সংঘর্ষে আমার হাত রয়েছে কিনা সেই বিষয়ে আমাকে কোনও কিছু বলার সুযোগ না দিয়েই  পর্যবেক্ষেক শুভেন্দু অধিকারী, অমল আচার্য, হামিদুর রহমান ও গোলাম রব্বানির দেওয়া রিপোর্ট হাতে পেয়েই আমাকে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে অপসারিত করলেন।
কংগ্রেস থেকে আসা নতুন বিধায়ককে রাস্তা করে দিতে এবং আমাকে দল ছাড়া করার জন্য আপনি সুযোগের সন্ধানে ছিলেন। তাই আপনাকে স্বস্তি ও শান্তি দিতে আমি আপনার দল তৃণমূল কংগ্রেস ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলাম। আমার এই ইস্তফা পত্র দয়া করে গ্রহন করবেন। আনন্দ উপভোগ করুন। আলবিদা।”

আরও দেখুন

ঝোড়ো হাওয়ায় জাতীয় সড়কের ওপর ভেঙে পড়ল আলোকসজ্জার গেট

Nblive আলিপুরদুয়ারঃ আলিপুরদুয়ার জেলার ফালাকাটা শহরে আজ প্রায় ৯’টা নাগাদ ঝোড়ো হাওয়ায় ভেঙে পড়লো আলোকসজ্জার …