Home > featured > পাওনাদারের টাকা মেটানো নিয়ে স্কুলেই দুই শিক্ষকের হাতাহাতি

পাওনাদারের টাকা মেটানো নিয়ে স্কুলেই দুই শিক্ষকের হাতাহাতি

 

NBlive রায়গঞ্জঃ প্রধান শিক্ষক ও সহ শিক্ষকের মধ্যে হাতাহাতির অভিযোগ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ইসলামপুরে। ঘটনায় জখম ইসলামপুর হাইস্কুলের দুই শিক্ষক চিকিৎসাধীন হাসপাতাল ও নার্সিংহোমে। জানা গেছে, সরস্বতী পূজার পর কয়েকদিন কেটে গেলেও পাওনাদারদের টাকা পরিশোধ না হওয়ায় প্রধান শিক্ষক ও একজন সহকারি শিক্ষক নিজেদের মধ্যে বচসায় জড়িয়ে পড়েন। ঘটনায় উভয়পক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে মারধর করার অভিযোগ তোলেন।

এই বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেন, সরস্বতী পূজার অন্যতম দায়িত্বে ছিলেন তাদেরই সহ-শিক্ষক বিপ্লব সরকার ।এদিন বকেয়া পরিশোধ করবার জন্য ওই শিক্ষক তার কাছে চেক চাইতে আসেন। কিন্তু চেকে বিদ্যালয় পরিচালন সমিতির সভাপতি কাইজার চৌধুরীর স্বাক্ষর না থাকায় তা দেওয়া সম্ভব হয়নি। এরপরেই বিপ্লববাবু চেক না পেয়ে উত্তেজিত হয়ে পড়েন এবং তাঁকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করার পাশাপাশি মারধর করেন বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

এদিকে বিদ্যালয়ের সহশিক্ষক বিপ্লব সরকার বলেন, প্রধান শিক্ষককে মারধর করার অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। চেক না দিয়ে উত্তেজিত হয়ে প্রধান শিক্ষক তাঁর উপর হাত তোলেন। বিপ্লব বাবুর বলেন, এদিন চেকের মাধ্যমে সমস্ত পাওনাদারদের টাকা পরিশোধ করার কথা ছিল। সরস্বতী পূজার সময় বৃষ্টিতে ভিজে শ্রমিকরা কাজ করেছেন। তাঁরা বেশ কয়েকদিন ধরেই টাকার জন্য বিদ্যালয়ে যাতায়াত করছিলেন। তাঁদের প্রয়োজনের কথা ভেবেই এ দিন প্রধান শিক্ষককে বকেয়া টাকা মিটিয়ে দেওয়ার কথা বলি। কিন্তু প্রধান শিক্ষক উলটে তাঁকেই মারধর করেন।

ব্যক্তিগতভাবে দুইজন পাওনাদারদের টাকা মিটিয়েও দেন বলেও জানিয়েছেন বিপ্লব বাবু। তবে এই বিষয়টিকে কেন্দ্র করে যা হয়েছে তাকে লজ্জ্বাজনক ঘটনা বলেই দাবী করেছেন ওই সহ-শিক্ষক বিপ্লব সরকার।

 

আরও দেখুন

উপনির্বাচনে ব্যাপক উত্তেজনা ইসলামপুরে, আক্রান্ত সংবাদমাধ্যম

    NBlive ইসলামপুরঃ উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ইসলামপুরে। ব্যাপক বোমাবাজির অভিযোগ মাদারিপুর এলাকায়। খবর …