Home > featured > কাটতে চলেছে অচলাবস্থা, পড়ুয়াদের ভবিষতের কথা ভেবে খুলছে দাড়িভিট হাইস্কুল
কাটতে চলেছে অচলাবস্থা, পড়ুয়াদের ভবিষতের কথা ভেবে খুলছে দাড়িভিট হাইস্কুল

কাটতে চলেছে অচলাবস্থা, পড়ুয়াদের ভবিষতের কথা ভেবে খুলছে দাড়িভিট হাইস্কুল

কাটতে চলেছে অচলাবস্থা, পড়ুয়াদের ভবিষতের কথা ভেবে খুলছে দাড়িভিট হাইস্কুল

কাটতে চলেছে অচলাবস্থা, পড়ুয়াদের ভবিষতের কথা ভেবে খুলছে দাড়িভিট হাইস্কুল

NBlive রায়গঞ্জঃ প্রশাসনের ডাকা সর্বদলীয় বৈঠকের আগেই স্কুলের চাবি প্রশাসনের হাতে তুলে দিতে রাজি হলেন হত পরিবার। বুধবার সন্ধ্যায় মৃত পড়ুয়া রাজেশ সরকারের বাবা নীলকমল সরকার বলেন, ৮গ্রাম বাসীর নিঃশর্ত মুক্তি, সিবিআই তদন্তের দাবীতে আমাদের আন্দোলন চললেও ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষতের কথা ভেবে স্কুলের চাবি প্রশাসনের হাতে তুলে দিচ্ছি। ফলে অচলাবস্থা কাটিয়ে পূজার ছুটির পরেই দাড়িভিট স্কুল খুলতে চলেছে।

 

কাটতে চলেছে অচলাবস্থা, পড়ুয়াদের ভবিষতের কথা ভেবে খুলছে দাড়িভিট হাইস্কুল

তবে ছাত্র মৃত্যুর ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবীতে আন্দোলন চালিয়ে যাবেন তাঁরা। এদিন দীপাবলীর রাতে দাড়িভিট গ্রামে এলাকার বাসিন্দারা দাড়িভিট স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র তাপস বর্মন ও রাজেশ সরকারের গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে এলাকায় মোমবাতি মিছিল করে। মোমবাতি মিছিল করে গ্রামের বাসিন্দারা মৃত তাপস ও রাজেশের সমাধিস্থলে গিয়ে শ্রদ্ধা জানায়। এর পাশাপাশি মানব বন্ধনের মাধ্যমে একজোট হয়ে আন্দোলনে নামার অঙ্গীকার করে দাড়িভিট গ্রামের বাসিন্দারা। মিছিলে দাবি একটাই ছাত্র মৃত্যুর ঘটনার সিবিআই তদন্ত চাই। ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যতের পড়াশুনার কথা ভেবে আগামী ১০ নভেম্বর স্কুল খুলতে দেওয়া হলেও স্কুলের মাঠে অবস্থান বিক্ষোভ আন্দোলন তারা চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন অভিভাবকেরা।

কাটতে চলেছে অচলাবস্থা, পড়ুয়াদের ভবিষতের কথা ভেবে খুলছে দাড়িভিট হাইস্কুল

গত ২০ সেপ্টেম্বর উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুর ব্লকের দাড়িভিট উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্র পুলিশ সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ মৃত্যু হয়েছিল বিদ্যালয়ের দুই প্রাক্তন ছাত্র রাজেশ সরকার ও তাপস বর্মনের। এই ঘটনায় তোলপাড় হয়ে ওঠে গোটা রাজ্য। পুলিশের গুলিতেই দুই ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে এই অভিযোগ তুলে ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবীতে প্রায় দুমাস যাবৎ স্কুল বন্ধ করে দিয়ে অবস্থান বিক্ষোভ আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন মৃত ছাত্রদের পরিবার ও গ্রামের বাসিন্দারা। রাজ্য সরকার ঘটনার সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দিলেও তাতে নারাজ মৃতদের পরিবার। প্রশাসন থেকে বহুবার চেষ্টা করেও দাড়িভিট স্কুল খোলাতে পারেনি। সিবিআই তদন্তের দাবীতে অনড় তাঁরা। আজও তাঁরা অনড় রয়েছেন ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবীতে। তবে স্কুলের হাজার দুয়েক ছাত্রছাত্রীর পড়াশুনার ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে আগামী ১০ নভেম্বর দাড়িভিট স্কুল খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন অভিভাবকেরা।

কাটতে চলেছে অচলাবস্থা, পড়ুয়াদের ভবিষতের কথা ভেবে খুলছে দাড়িভিট হাইস্কুল

 

নিহত রাজেশ সরকারের বাবা নীলকমল সরকার বলেন, আমাদের ঘরের ছেলে চলে গিয়েছে। তাঁদেরকে তো আর ফিরে পাবোনা। কিন্তু এই স্কুলের পড়ুয়াদের ভবিষতের কথা ভেবে আমরা স্কুল গেট থেকে ধর্ণা আন্দোলন সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সিবিআই তদন্ত ও ৮ গ্রামবাসীর নিঃশর্ত মুক্তির দাবী থেকে সরে আসছি না। প্রশাসনকে দাবী জানানো হবে। দাবী মেনে না নিলে পরবর্তীতে আবারও আন্দোলনে নামতে পারি বলে জানিয়েছেন নীলকমল বাবু।

আরও দেখুন

ফুল দিয়ে সাজানো হলো চিতা, বন্ধ শবদাহ, সন্ধ্যায় মোমবাতি প্রজ্বলন

ফুল দিয়ে সাজানো হলো চিতা, বন্ধ শবদাহ, সন্ধ্যায় মোমবাতি প্রজ্বলন

  NBlive রায়গঞ্জঃ প্রয়াত নেতাকে শ্রদ্ধা জানাতে বন্দর শ্মশান ঘাটের একটি চুল্লির ব্যবহার একদিনের জন্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *