Home > featured > আদালতে শর্ত শিথিল করার আবেদন জানাতে এসে বিপাকে শঙ্কর চক্রবর্তী
পুলিশের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক বক্তব্য, গ্রেফতার বিজেপি নেতা শঙ্কর চক্রবর্তী

আদালতে শর্ত শিথিল করার আবেদন জানাতে এসে বিপাকে শঙ্কর চক্রবর্তী

আদালতে শর্ত শিথিল করার আবেদন জানাতে এসে বিপাকে শঙ্কর চক্রবর্তী

আদালতে শর্ত শিথিল করার আবেদন জানাতে এসে বিপাকে শঙ্কর চক্রবর্তী

 

NBlive রায়গঞ্জঃ আদালতে শর্ত শিথিল করার আবেদন জানাতে এসে বিপাকে পড়লেন উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপির সভাপতি শঙ্কর চক্রবর্তী। যেখানে জেলায় প্রবেশের ক্ষেত্রেই নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে নেতার বিরুদ্ধে, সেখানে সোজা এজলাসে প্রবেশ করে কার্যত আদালতের নির্দেশ অবমাননা করেছেন শঙ্কর বাবু বলে অভিযোগ উঠেছে। আর তাতেই শঙ্কর বাবুকে শোকজ করল চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। জানতে চাওয়া হয়েছে, কেন তাঁর জামিন বাতিল করা হবে না।

জানা গেছে, কালীপূজায় পরিবারের সাথে কাটানোর জন্য জেলায় প্রবেশের নিষেধাজ্ঞার শর্ত শিথিল করার আর্জি জানাতে নিজেই এজলাসে এসেছিলেন শঙ্কর বাবু। আর তাতেই বিপাকে পড়েছেন তিনি। ঘটনার পর থেকেই মোবাইল ফোনের সুইচ অফ করে রেখেছেন তিনি।

সরকারি আইনজীবী নীলাদ্রী সরকার বলেন, “ আদালতের কাছে যে কেউ আবেদন জানাতেই পারে।কিন্তু এই জেলায় প্রবেশ করার ক্ষেত্রে যার উপড়ে আদালতের নিষেধাজ্ঞা বহাল রয়েছে, সে কী করে সশরীরে এসে আবেদন করে।এটাতে সরাসরি আদালতের নির্দেশ অমান্য করা হয়েছে।এই ঘটনায় শঙ্কর চক্রবর্তীকে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শোকজ করেছেন। তাঁর জামিন কেন বাতিল করা হবে না, সেই ব্যাখ্যাও লিখিতভাবে জানানোর নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

 

আদালতে শর্ত শিথিল করার আবেদন জানাতে এসে বিপাকে শঙ্কর চক্রবর্তী

 

আদালতে শর্ত শিথিল করার আবেদন জানাতে এসে বিপাকে শঙ্কর চক্রবর্তী

 

উল্লেখ্য, দাড়িভিটে দুই ছাত্রের গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যুর ঘটনার পর আন্দোলনে নামে বিজেপি। দাড়িভিটে প্রকাশ্যে পুলিশের বিরুদ্ধে উস্কানি মূলক মন্তব্য করার অভিযোগে প্রথমে শঙ্কর বাবুকে গ্রেফতার করে। এরপর বিজেপির ডাকা বনধেবাস ভাঙচুর করে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করার পৃথক একটি মামলা রুজু করা হয় শঙ্কর বাবুর বিরুদ্ধে। এবং রায়গঞ্জে অনুমতি ছাড়া মিছিল ও মুখ্যমন্ত্রীর কুশপুতুল দাহ করার অভিযোগও আনা হয় শঙ্কর বাবুর বিরুদ্ধে। প্রথম দুটি মামলায় জামিন পেলেও তৃতীয় মামলায় শর্তসাপেক্ষ জামিন মঞ্জুর হয় শঙ্কর বাবুর।

জেলায় প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা ও প্রতি সপ্তাহে একবার করে ইংরেজবাজার থানায় হাজিরা দিতে বলা হয় তাঁকে।

 

আদালতে শর্ত শিথিল করার আবেদন জানাতে এসে বিপাকে শঙ্কর চক্রবর্তী

 

এদিকে ঘটনার পর থেকেই বিজেপি সভাপতি শঙ্কর চক্রবর্তীর মোবাইল সুইচড অফ রয়েছে। তাঁর আইনজীবী ভোলা বর্মন জানিয়েছেন ,“বিষয়টির গুরুত্ব আমি ঠিক বুঝতে পারিনি। আদালতে শর্ত শিথিলের জন্য তিনি নিজে এসে আবেদন জানালেই ভালো হবে চিন্তা করে আমি তাঁকে আসতে বলেছিলাম।’’

বিজেপি’র জেলার সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিত লাহিড়ী জানিয়েছেন,“ আমরা সাধারণত আদালতের নির্দেশ মান্য করেই চলি। তবে এক্ষেত্রে তিনি কেন এই কাজ করেছেন, তার ব্যাখ্যা আমাদের কাছে নেই।’’

আরও দেখুন

ফুল দিয়ে সাজানো হলো চিতা, বন্ধ শবদাহ, সন্ধ্যায় মোমবাতি প্রজ্বলন

ফুল দিয়ে সাজানো হলো চিতা, বন্ধ শবদাহ, সন্ধ্যায় মোমবাতি প্রজ্বলন

  NBlive রায়গঞ্জঃ প্রয়াত নেতাকে শ্রদ্ধা জানাতে বন্দর শ্মশান ঘাটের একটি চুল্লির ব্যবহার একদিনের জন্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *